ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৪ আশ্বিন ১৪২৯
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

http://www.shomoyeralo.com/ad/Untitled-1.jpg
এসএসসির প্রশ্নপত্র ফাঁস: জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি জরুরি
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১:১৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 74

দেশের প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি, আর্থিক কেলেঙ্কারি এখন আর নতুন কিছু নয়। আশঙ্কার বিষয় হলো, বর্তমান প্রজন্ম কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের আগে শিক্ষাজীবনেই দুর্নীতির সঙ্গে পরিচিত হচ্ছে। শিক্ষাঙ্গনে দুর্নীতি ও অনিয়মের এক অভিনব পদ্ধতি প্রশ্নপত্র ফাঁস। স্কুল, কলেজ, এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনাগুলোর পুনরাবৃত্তি ঘটছে। 

এর পেছনে দায়ী প্রশ্নপত্র প্রণয়ন থেকে শুরু করে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছানো পর্যন্ত প্রতিটি পর্যায়ের কোনো-না-কোনো দায়িত্বশীল কর্মকর্তা। শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নেতৃত্ব ও সুষ্ঠু তত্ত্বাবধানের অভাব, কর্তব্যে অবহেলা এবং নৈতিকতার অবক্ষয়ে আক্রান্ত দেশের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। অত্যন্ত লজ্জার ব্যাপার, শিক্ষকদের কেউ কেউ প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে সরাসরি জড়িত এবং তারাই মূলত ফাঁস হওয়া প্রশ্ন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে বিতরণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মূল্যবোধ ধ্বংস করতে ভূমিকা রাখছেন।

মঙ্গলবার কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলার নেহাল উদ্দিন পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কেন্দ্রে ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে। চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের এ অভিযোগে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে মামলা হয়েছে। মামলায় ভূরুঙ্গামারী নেহাল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, কেন্দ্র সচিবসহ ওই বিদ্যালয়ের চার শিক্ষকের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। 

এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে, কেন্দ্র সচিবের কক্ষ থেকে গণিত (আবশ্যিক), উচ্চতর গণিত, কৃষিশিক্ষা, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও জীববিজ্ঞানের প্রশ্নপত্রের প্যাকেট উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে একটি প্যাকেট ছাড়া সব কটি প্যাকেটের মুখ খোলা ছিল। 

এ সময় সেখানে উপস্থিত ভূরুঙ্গামারী থানার উপপরিদর্শক প্রশ্নপত্রগুলো জব্দ করেন। পরে তিনি লুৎফর রহমানকে আটক করেন। এ সময় লুৎফর রহমানকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি বলেন, ‘পূর্বপরিকল্পিতভাবে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু হানিফের সহায়তায় কৌশলে প্রশ্নপত্রের প্যাকেটগুলো কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়। পরে প্রশ্নপত্রগুলো আবু হানিফ, অন্য দুই শিক্ষক জোবাইর হোসেন, আমিনুর রহমানসহ অজ্ঞাতনামা ১০ থেকে ১৫ জনের মাধ্যমে গোপনে প্রশ্নগুলো ফাঁস করে দেওয়া হয়।’ 

এদিকে এই মামলায় এখন পর্যন্ত কেন্দ্র সচিবসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষক হামিদুর রহমান ও মো. সোহেলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়েছে পুলিশ। এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপার মোরশেদুল হাসান বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে তিন শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে।’

বুধবার সকালে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কামরুল ইসলাম চলমান এসএসসির গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, কৃষিবিজ্ঞান, রসায়ন ও জীববিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত জানান। এ অবস্থায় আজ ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে এক কর্মশালা শেষে ভুরুঙ্গামারীর ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন শিক্ষা সচিব আবু বকর। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর ছিদ্দীক বলেছেন, ‘আমরা একটি কঠিন সময়ের মধ্যে আছি। তিন শিক্ষক জেলে, একজন পলাতক। আমি কার ওপর বিশ্বাস করব? দুর্ভাগ্য, এই শিক্ষকদের গ্রেফতার না করে পারিনি।’

শিক্ষার মূল উদ্দেশ্যের মধ্যে অন্যতম একটি হলো নৈতিক চরিত্রের উন্নতিসাধন। আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় নৈতিকতাকে আরও গুরুত্ব দিতে হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তাই অন্যান্য প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার পাশাপাশি প্রশ্নপত্র প্রণয়ন থেকে শুরু করে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছানো পর্যন্ত প্রতিটি পর্যায়ের সুষ্ঠু পর্যবেক্ষণ নিশ্চিত করার বিষয়টিও কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় রাখা জরুরি। সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণসহ প্রশ্নপত্র ফাঁস সমস্যার দ্রুত সমাধান প্রয়োজন। সেই সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এ ধরনের অপকর্মে যুক্ত হতে সাহস না পায়।




http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : shomoyeralo@gmail.com