ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ ১৭ আষাঢ় ১৪২৯
ই-পেপার শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

মহাস্থানগড় খননে মিলছে গুপ্ত ও পাল যুগের প্রত্ন নিদর্শন
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২, ৪:০৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 113

বগুড়ার মহাস্থানগড়ে প্রত্নতাত্ত্বিক খননে সন্ধান মিলেছে প্রায় ১৭০০ বছর আগের প্রাচীন পুরাকৃতির। ইতোমধ্যেই এ খনন কাজ থেকে আবিষ্কার হয়েছে প্রাচীন আমলের সিল ও পোড়া মাটির মাথা। এ ছাড়া সন্ধান পাওয়া গেছে গুপ্ত ও পাল যুগের বেশ কয়েকটি বৌদ্ধ মূর্তির। প্রত্নতাত্ত্বিকরা বলছেন, মহাস্থানগড়ের বৈরাগীর ভিটায় একটি বৌদ্ধ মন্দির রয়েছে। যার ধ্বংসাবশেষও আবিষ্কৃত হয়েছে।

চলতি বছরের ১ মার্চ থেকে মহাস্থানগড়ের বৈরাগীর ভিটায় চলছে এ খনন কাজ। শুরু হওয়া এই খনন কাজ চলবে আরও মাসখানেক। প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত সেখানে ১৭০০ বছরের পুরনো বৌদ্ধ মূর্তি, দুটি বৌদ্ধ স্তুপা (সমাধি সৌধ), প্রাচীন লিপি খচিত সিল, পোড়া মাটির নারী অবয়বের মাথা, অলঙ্কৃত ইট, ভগ্ন মৃৎ পাত্র, বৌদ্ধ মন্দিরসহ বিভিন্ন প্রত্ন সামগ্রীর সন্ধান পাওয়া গেছে।

ইতিহাসের লুকানো রহস্য দর্শকদের সামনে উপস্থাপনের জন্য ২০১৬ থেকে বৈরাগীর ভিটা খনন শুরু করে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর। গেত তিন বছর করোনা মহামারির কারণে খনন বন্ধ থাকলেও এবার পুনরায় এই ভিটায় চলছে খননযজ্ঞ। বর্তমানে বৈরাগীর ভিটার যে স্থানে খনন করা হচ্ছে তার সঙ্গেই ঠিক দক্ষিণাংশে একটি মন্দির কমপ্লেক্সের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল আগের খননে। আর এবার বৌদ্ধ মন্দির কমপ্লেক্সের সন্ধান পেলেন উৎখননে নিয়োজিতরা।

প্রত্নতত্ব অধিদফতরের আঞ্চলিক পরিচালক নাহিদ সুলতানা বলেন, ২০১৬ সাল থেকে পরপর তিন অর্থবছরের শীত মৌসুমে আমরা বৈরাগীর ভিটায় খনন কাজ শুরু করি। ইতোমধ্যেই প্রত্নতাত্ত্বিক অনেক নিদর্শন আমরা পেয়েছি। গত দুবছর করোনার কারণে বন্ধ থাকার পর ২০২১-২২ অর্থবছরে ১ মার্চ থেকে আমরা পুনরায় এ খনন শুরু করেছি। এবারের খননে আমরা চারটি দেয়ালবিশিষ্ট স্তূপ পেয়েছি এবং এর মাঝখানে একটি বৌদ্ধ মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ পেয়েছি। এ ছাড়া পাওয়া গেছে প্রাচীন আমলের সিল, মূর্তির মাথাসহ অন্যন্য নিদর্শনও।

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের মহাপরিচালক রতন চন্দ্র পালিত জানান, মহাস্থানগড়ের বৈরাগীর ভিটায় গুপ্ত ও পাল যুগের অনেক নিদর্শন পাওয়া গেছে। প্রাচীন এসব পুরাকীর্তির মধ্যে বৌদ্ধ মূর্তিগুলো ছিল দৃষ্টিনন্দন। মাথার অংশে চুল আঁচড়ানো ও খোঁপায় ফুল দেওয়া মূর্তি দেখতে পাওয়া গেছে। এগুলো থেকে সেই সময়ের মানুষের জীবনচরিত সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়।


http://www.shomoyeralo.com/ad/Local-Portal_Send-Money_728-X-90.gif



http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]