ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ ৪ ভাদ্র ১৪২৯
ই-পেপার শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

http://www.shomoyeralo.com/ad/Untitled-1.jpg
মেজর সিনহা হত্যা মামলার রায় ৩১ জানুয়ারি
সিনহাকে খুন করেছে লিয়াকত: আদালতে ওসি প্রদীপ
আমিরুল ইসলাম মো. রাশেদ, কক্সবাজার
প্রকাশ: বুধবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২২, ২:৩৩ পিএম আপডেট: ১২.০১.২০২২ ২:৩৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 459

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে হত্যা করেছেন তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলী বলে আদালতে দাবি করেছেন প্রদীপ কুমার দাশ। 

যুক্তিতর্কের শেষ এ দিনে ওসি প্রদীপ কুমার দাশের পক্ষে আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী রানা দাশগুপ্ত। পরে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী যুক্তি-খণ্ডন করার সময় আদালতে ১০ মিনিট সময় প্রার্থনা করেন প্রদীপ কুমার দাশ। 

এ সময় আসামির কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, স্যার (বিচারক) মেজর অবসরপ্রাপ্ত সিনহাকে খুন করেছে লিয়াকত। এটা আমি স্পষ্ট জানি। আমার প্রতি আপনি সদয় বিবেচনা করা হোক। 

প্রতিউত্তরে বিচারক জানতে চান, আপনি (প্রদীপ) জেনে থাকলে সেটা জবানবন্দিতে বলেননি কেন? এখন মামলা রায়ের পর্যায়ে এসব কেন বলছেন? এ সময় প্রদীপ আর কিছু বলেননি।

এদিকে মামলার রায় আগামী ৩১ জানুয়ারি ঘোষণা করা হবে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে। বুধবার (১২ জানুয়ারি) যুক্তিতর্ক শেষে জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ঈসমাইল রায়ের জন্য এই দিন নির্ধারণ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের সিনিয়র আইনজীবী সাবেক পিপি ও বারের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম।

তিনি জানান, সিনহা হত্যা মামলায় ৮৩ জন সাক্ষীর মধ্যে ৬৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। সাক্ষীদের সবাই বলেছেন, ওসি প্রদীপের নেতৃত্বে সিনহা হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।

জানা গেছে, সাক্ষীদের সাক্ষ্য প্রদান শেষে ৯ জানুয়ারি যুক্তিতর্ক শুরু হয়। চারদিনের যুক্তিতর্কে প্রত্যেক আসামীদের পক্ষে-বিপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়। এই সময়ে রাষ্ট্রপক্ষে এবং আসামি পক্ষের আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, সিনহাকে খুনের জন্য পরিদর্শক লিয়াকতকে সরাসরি দায়ী করে বিচারকের নিকট নিজের প্রতি সদয় হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন টেকনাফ থানার সাবেক বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ।


উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে  শামলাপুর তল্লাশিচৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে তিনটি মামলা করা হয়। ঘটনার পাঁচ দিন পর অর্থাৎ ৫ আগস্ট কক্সবাজার আদালতে টেকনাফ থানার বহিষ্কৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। চারটি মামলা তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা র‍্যাব ১৫ কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খাইরুল ইসলাম।

/আরএ

http://www.shomoyeralo.com/ad/Local-Portal_Send-Money_728-X-90.gif

আরও সংবাদ   বিষয়:  ওসি প্রদীপ   মেজর সিনহা হত্যা  




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]