ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ৩ মাঘ ১৪২৮
ই-পেপার সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

বিয়ের চাপ দেওয়ায় প্রেমিকাকে হত্যা
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 164

দুই বছর আগে এক লন্ডন প্রবাসীর সঙ্গে বিয়ে হয় খুশি বেগমের (১৫)। স্বামীর অবর্তমানে একই গ্রামের মহিউদ্দিনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। সম্প্রতি বিয়ের জন্য সেই প্রেমিকাকে চাপ দিতে থাকেন খুশি। কিন্তু প্রেমিক মহিউদ্দিন বিয়ে না করে টালবাহানা শুরু করে। খুশি তাদের দু’জনের মধ্যে প্রেমের বিষয়টি প্রকাশ করে দেবে বলে জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে প্রেমিক। এবার মহিউদ্দিন কৌশলে রাতের আধারে বাড়ি থেকে ডেকে নেওয়া হয় খুশিকে। এরপর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। গত ১৭ নভেম্বর সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার গৌরিপুর গ্রামের কিশোরী খুশিকে এভাবেই প্রেমিক মহিউদ্দিনের হাতে নির্মমভাবে প্রাণ হারাতে হয়। নিহত খুশি মুক্তিরগাঁও হাফিজিয়া মাদরাসার ছষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। বাবার নাম কবির মিয়া। 

শনিবার দুপুরে এসব তথ্য জানান পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর। এ ঘটনায় প্রেমিক মহিউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে ছাতকের গৌরিপুর গ্রামের মৃত আজগার আলীর ছেলে। মহিউদ্দিন খারগাঁও হাফিজিয়া মাদরাসা থেকে ২০১৮ সালে হেফজ পাশ করে। গক দুই বছর থেকে সে বেকার ছিল।

বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর জানান, মামলাটি ক্লুলেস হওয়ায় হত্যায় জড়িতদের খুঁজে পা”িছল না তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। এক পর্যায় জানা যায়, খুশির সঙ্গে গৌরিপুর গ্রামের মহিউদ্দিন নামের এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সূত্র ধরে আরও জানা যায়, বেশ কিছুদিন ধরে খুশি বেগম প্রেমিক মহিউদ্দনকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিয়ে আসছিল। এতে সে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। তখন খুশি তাদের সম্পর্কের বিষয়টি পরিবার ও সমাজের কাছে প্রকাশ করার কথা জানায়। এমন কথা শুনে প্রেমিক মহিউদ্দিন তার প্রেমিকা খুশিকে হত্যার পরিকল্পনা করে। গত ১৭ নভেম্বর রাতে খুশিকে কৌশলে বাড়ী থেকে ডেকে নেয়। এরপর ধান ক্ষেতে নিয়ে গলায় ওড়না পেচিয়ে হত্যা করে। পরে দ্রুত ঘটনা¯’ল ত্যাগ করে।

তিনি আরও জানান, খুশির পরিবার তাকে খুঁজে পাচ্ছিল না। বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজের তিনদিন পর তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় খুশির পরিবার ১৯ নভেম্বর ছাতক থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। ডিজির দুইদিন পর তার লাশের সন্ধ্যান মিলেছে বলে বাড়িতে খবর আসে। এরপর বাড়ীর লোকজন ঘটনা¯’লে গিয়ে লাশটি দেখে খুশি বলে শনাক্ত করে। পরে ২৪ নভেম্বর খুশির বাবা বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত প্রেমিক মহিউদ্দিন খুশিকে হত্যার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে।

/এমএইচ/




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]