ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯
ই-পেপার  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ময়লায় সয়লাব, প্রয়োজন সচেতনতা
আদিল সরকার ইবি
প্রকাশ: শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১১:১১ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 257

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনা এবং সচেতনতার অভাবে যত্রতত্র আবর্জনা ফেলার প্রবণতায় ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। ফলে আবর্জনার দুর্গন্ধ ও জীবাণু চারদিকে ছড়িয়ে পড়ায় বিভিন্ন রোগের সূত্রপাত ঘটছে। 

দীর্ঘদিন ধরে এসব ময়লার স্তূপ পরিষ্কার না করায় বেড়েছে মশার উপদ্রব। ফলে বাড়ছে ডেঙ্গুসহ নানাবিধ মশাবাহিত রোগের আশঙ্কা। ক্যাম্পাসের এমন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিন দেখা যায়, ক্যাম্পাসের সাদ্দাম হোসেন হল, জিয়া হলসহ বিভিন্ন আবাসিক হলের আশপাশ, জিয়া মোড় এলাকা, বিজ্ঞান ভবন, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি, বিশ্ববিদ্যালয় লেক ও বিভিন্ন জায়গায় ময়লার স্তূপ জমে আছে। এ ছাড়া বিভিন্ন বিভাগের ল্যাবে ব্যবহৃত জিনিসপত্রও বিজ্ঞান ভবনের সামনে ফেলে রাখতে দেখা যায়। ক্যাম্পাসে যথেষ্ট ডাস্টবিন না থাকা ও সময়মতো ডাস্টবিনগুলো পরিষ্কার না করায় ময়লা উপচে পড়ছে। এসব পরিষ্কারে কর্তৃপক্ষের কোনো ধরনের নজর নেই বললেই চলে। ফলে দিন দিন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পরিণত হয়ে উঠছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।

এদিকে ক্যাম্পাসে আবর্জনা ও ঝোপঝাড় বাড়ায় বাড়ছে মশার বংশ বিস্তার। ফলে মশার যন্ত্রণায় দিনদুপুরেই ক্যাম্পাসের বিভিন্ন খোলা স্থানে কিংবা ক্লাসরুমে বসে থাকা কষ্টকর হয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীদের জন্য। একই সঙ্গে রাতে আবাসিক হলগুলোতেও মশার কারণে পড়াশোনায় মনোযোগী হতে পারছেন না শিক্ষার্থীরা। এমনকি রাতে ঘুমাতেও কষ্ট হয় তাদের। মশার উপদ্রব কমাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ থেকে কোনো ধরনের ওষুধও ছিটানো হচ্ছে না। 

জিয়াউর রহমান হলের আরিফ হাসান নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘হলের আশপাশে ময়লা-আবর্জনা সময়মতো পরিষ্কার না করায় মশার পরিমাণ বেড়েছে। রাতের বেলায় রুমে মশার কারণে ঠিকমতো পড়াশোনা করতে পারছি না।’

একই সঙ্গে মশার উপদ্রব বাড়ায় ডেঙ্গুসহ নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা। ফলে দ্রুত এসব ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন তারা। 

জুয়েল সরকার নামে এক শিক্ষার্থী জানান, সাদ্দাম হোসেন হলের পাশে গেলে দুর্গন্ধে নাক চেপে রাস্তা পার হতে হয়। কর্তৃপক্ষের এরকম অবহেলা খুবই দুঃখজনক।

এ বিষয়ে স্টেট অফিসের প্রধান টিপু সুলতান বলেন, ‘অপরিষ্কার জায়গাগুলো সম্পর্কে জানলাম। দ্রুত পরিষ্কারের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে ক্যাম্পাসের সুরক্ষায় সবাইকেই সচেতনতার পরিচয় দিতে হবে।

এফএইচ




http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]