ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ ৪ ভাদ্র ১৪২৯
ই-পেপার শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

ওমিক্রন মোকাবিলায় হাসপাতালগুলো কতটা প্রস্তুত, সতর্কতা, সচেতনতা ও প্রস্তুতি জরুরি
প্রকাশ: শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ৯:২৫ এএম আপডেট: ০৩.১২.২০২১ ৯:২৮ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 174

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ নিয়ে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই নতুন ধরনকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে আখ্যায়িত করেছে। নিউইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এন্টার্কটিকা ছাড়া সব মহাদেশেই দ্রুত পৌঁছে যেতে পারে ওমিক্রন। আর সিএনএন জানিয়েছে, এরই মধ্যে বিশ্বের অন্তত ২২টি দেশে এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। সর্বশেষ শনাক্ত হয়েছে সৌদি আরবে। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে- দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরাইল, ইতালি, জাপান, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, নাইজেরিয়া ও ব্রাজিল। নতুন এ ধরন থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বিশ্বের ৭০টি দেশ। 

অণুজীব বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ওমিক্রন অস্বাভাবিকভাবে রূপান্তরিত হয়েছে এবং অন্য যেকোনো ধরন থেকে এটি আলাদা। এ ধরন তাদের হতবাক করেছে। করোনাভাইরাস সব মিলিয়ে ৫০ বারের মতো জিনবিন্যাস পরিবর্তিত হয়ে ‘ওমিক্রন’ রূপ পেয়েছে। 

ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে ইতোমধ্যে নড়েচড়ে বসেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বিমানবন্দর ও স্থলবন্দরসহ দেশের সব প্রবেশপথে স্ক্রিনিং আরও জোরদারের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ওমিক্রন মোকাবিলায় সব ধরনের প্রস্তুতি আছে বলে জানিয়েছেন রাজধানীর করোনা বিশেষায়িত সরকারি হাসপাতালগুলোর কর্মকর্তারা। তারা বলেছেন, ‘আমরা সতর্ক অবস্থায় রয়েছি। করোনার সময়ে যেভাবে রোগীদের সেবা দিয়েছি, যে ধরনই আসুক না কেন, সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত। তবে যেহেতু দেশে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আসার প্রমাণ নেই, তাই আলাদা করে প্রস্তুতি নেওয়া হয়নি।’
 
স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে এটাই স্বাভাবিক। কোনো একটি ভ্যারিয়েন্ট যদি দীর্ঘ সময় কোনো স্থানে থাকে, তাহলে সেটি ধীরে ধীরে দুর্বল হতে বাধ্য হয়। সে জন্যই আমাদের সংক্রমণ একেবারেই কম। তবে নতুন কোনো ধরন চলে এলে সংক্রমণ আবার বাড়তে পারে। আর এ জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ সবার জন্য টিকা নিশ্চিতের পরামর্শ দিয়েছেন তারা। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ওমিক্রনকে ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ হিসেবে ঘোষণা করেছে। এটা সম্পর্কে প্রতিনিয়ত আমরা নতুন তথ্য-উপাত্ত পাচ্ছি। এই মুহূর্তে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে ভ্রমণ। তাই সংক্রমণের ঝুঁকি থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করতে বন্দরগুলোতে আমরা সতর্কতা দিয়েছি। কোয়ারেন্টাইনের বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছিল সেটি আর শিথিল নেই। কোয়ারেন্টাইনের বিধিনিষেধ আমরা কঠোরভাবে প্রতিপালনের নির্দেশনা দিয়েছি।

এর আগে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে আমরা দেখেছি, এতে আক্রান্ত প্রায় সবারই তীব্র শ্বাসকষ্ট হয়। ফলে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তদের প্রাণ রক্ষার জন্য দিতে হয় অক্সিজেন। ভারতে এই ভ্যারিয়েন্ট ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে বিপুলসংখ্যক মানুষকে অক্সিজেন দিতে তাদের হিমশিম খেতে হয়। একপর্যায়ে তীব্র অক্সিজেনের সঙ্কট দেখা দেয়। শুধু অক্সিজেনের অভাবে দেশটিতে বহু মানুষ মারা যায়। আবার যখন এটি সংক্রমিত হয় তখন আমাদের দেশেও অক্সিজেনের সঙ্কট দেখা দেয়।  জানা গেছে, ওমিক্রনে আক্রান্ত হওয়ার এক সপ্তাহ পর সবারই তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। তাই আমরা মনে করি, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে সরকারকে অক্সিজেন মজুদের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিতে হতে। তবেই ওমিক্রনের সংক্রমণ থেকে প্রাণহানি অনেক কমিয়ে আনা সম্ভব হবে।




http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]