ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

বিদেশে বন্দি বাংলাদেশিদের মুক্তির ব্যবস্থা নিন
আর কে চৌধুরী
প্রকাশ: বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১, ১২:৩১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 68

বিদেশের কারাগারে আটক রয়েছে ২০ হাজারের বেশি বাংলাদেশি। বলাই বাহুল্য, সংশ্লিষ্ট দেশগুলোয় অবৈধভাবে প্রবেশ, অবস্থানসহ বিভিন্ন অপরাধের দায়ে তাদের আটক রাখা হয়েছে। বিদেশের কারাগারে আটক বাংলাদেশির সংখ্যা দুনিয়ার কোনো কোনো দেশের জনসংখ্যার চেয়েও বেশি; যা বাংলাদেশের জন্য লজ্জা ও পরিতাপের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুধু ক্ষুদ্র দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপের মাফুসি কারাগারেই বন্দি আছেন ৩ হাজার বাংলাদেশি। বিভিন্ন অপরাধে তারা গ্রেফতার হয়ে ভোগ করছেন সাজা। আনুমানিক হিসাবে বিশ্বের ৪২ দেশে কমপক্ষে ২০ হাজার বাংলাদেশি বন্দি আছেন। এ সংখ্যা দ্বিগুণের বেশি হতে পারে বলে মনে করছেন কেউ কেউ। কারণ সরকারের পরিসংখ্যানে শুধু দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পরিচয় নিশ্চিত হওয়াদের তথ্যই আছে। প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকা বা যাদের কাছে ডকুমেন্টস নেই তাদের সংখ্যা সেভাবে উঠে আসে না।

এর মধ্যেই প্রতিদিন প্রচলিত ও অপ্রচলিত পথে বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছেন বাংলাদেশিরা। ভাগ্য বদলের আশায় তারা বৈধ পথের পাশাপাশি যাচ্ছেন অবৈধ পথেও। অনেকেই গিয়ে আটক হচ্ছেন সেখানকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে। আবার অনেকে ভিসার মেয়াদ শেষে অবস্থান করে অবৈধ হয়ে যাচ্ছেন।

কারাগারের অন্ধকার প্রকোষ্ঠে আটকে থাকা বাংলাদেশিদের মধ্যে রয়েছেন অবৈধ অনুপ্রবেশ ও মেয়াদোত্তীর্ণ অবস্থানকারী ছাড়াও চুরি, মাদক পাচারসহ রোমহর্ষক খুনের মতো অপরাধের সঙ্গে জড়িতরাও। সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রবাসীদের নিয়ে গবেষণা করা সংস্থাগুলোর বিভিন্ন সময়ের পরিসংখ্যানের তথ্যানুসারে, বিশ্বের ৪২টি দেশে কমপক্ষে ১০ হাজার বাংলাদেশি বন্দি হয়ে আছেন। এই সংখ্যা প্রতিনিয়তই পরিবর্তনও হচ্ছে। হতভাগাদের উদ্ধারের গতি শ্লথ হলেও চেষ্টা ও উদ্যোগ উভয়ই আছে সরকারের। নাম পরিচয় নিশ্চিত হয়ে দ্বিপক্ষীয় বোঝাপড়ার মাধ্যমে ২৩ দেশে বন্দি থাকা বাংলাদেশিদের ধাপে ধাপে আইনি সেবা দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। তবে বাকি দেশগুলোতে থাকা আটকদের বিষয়ে কোনো পক্ষ থেকেই তেমন কোনো উদ্যোগ নেই।

জানা যায়, প্রতিদিনই প্রচলিত ও অপ্রচলিত পথে বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে বাংলাদেশিরা। ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় তারা বৈধ পথের পাশাপাশি যাচ্ছেন অবৈধ পথেও। অনেকেই গিয়ে আটক হচ্ছেন সেখানকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে। আবার অনেকে মেয়াদ শেষে বাড়তি অবস্থান করে অবৈধ হয়ে যাচ্ছেন। বেশিরভাগই লুকিয়ে থেকে কাজ করছেন। কেউ কেউ গ্রেফতার হচ্ছেন। প্রতিবেশী ভারতে নিয়মতান্ত্রিক পথ ছাড়াও বিভিন্নভাবে সীমান্ত পেরিয়ে যাওয়াদের সংখ্যাও কম নয়।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর তথ্যানুসারে শুধু পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কারাগারেই আছে প্রায় পাঁচ হাজার বাংলাদেশি। অন্যদিকে, দুর্গম পথে ইউরোপে পাড়ি দিতে গিয়ে আফ্রিকার দেশগুলোতে বন্দি হওয়া অনেকের তথ্যই পাওয়া যায় না। সেখানকার অনেক দেশেই নিয়মতান্ত্রিক কারাগারের কাঠামোই নেই। সেখানে হয়তো কোনো ঘরের মধ্যে আটকে রাখা হয় গ্রেফতার হওয়া ভাগ্যান্বেষীদের। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সব দূতাবাস থেকে তথ্য সমন্বয় করে জাতীয় সংসদকে জানান, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জেলে প্রায় সাত হাজার বাংলাদেশি নাগরিক বর্তমানে আটক রয়েছেন। তবে এ সংখ্যা প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। এর আগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তৈরি করা ২০১৪ সালের একটি তালিকায় ৪২টিরও বেশি দেশের কারাগারে ৭ হাজার ৮৫৯ জন বাংলাদেশি নাগরিক আটক থাকার কথা উল্লেখ আছে। তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী জাতীয় সংসদে সাত হাজার বন্দির তথ্য জানানোর ঠিক দুই মাস আগে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন সংসদকে ২৩ দেশে ৪ হাজার ৫৭৭ জন বন্দি থাকার তথ্য দেন।

তবে ভারতের শুধু পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ২০১১ ও ২০১২ সালে প্রতি মাসে গড়ে দেড় থেকে দুই হাজার বাংলাদেশিকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কারাগারে ঢোকানো হতো। গত ছয় মাসে এর সংখ্যা প্রায় চার হাজারে এসে দাঁড়িয়েছে। এই রাজ্যের ৫৭টি সংশোধনাগারের ৩২টিতেই বাংলাদেশি বন্দি রয়েছেন। কারাগারগুলোর মধ্যে তিনটিতে বেশি বাংলাদেশি আছেন। এর মধ্যে দমদম জেলে এক হাজার ৬৫ জন, বনগাঁ জেলে ৫০০ জন ও বালুর ঘাট কারাগারে ৩৫০ জন বাংলাদেশি বন্দি রয়েছেন। এ ছাড়া আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে দুই বছরের অধিক সময় ধরে জান খালাসি (শাস্তির মেয়াদ শেষ) হিসেবে ৫০০ এর বেশি বাংলাদেশি রয়েছেন। কারাগারে বন্দি ৩ হাজার ২৭৫ জন বাংলাদেশির মধ্যে বিচারাধীন ২ হাজার ৪৩ জন, সাজাপ্রাপ্ত ৭২৬ জন, জান খালাসের সংখ্যা ৩৪০ জন, অবশিষ্টরা এসব বন্দিদের সন্তানাদি।

পররাষ্ট্র, প্রবাসী কল্যাণ ও দূতাবাসগুলোর তালিকা অনুসারে, বাংলাদেশিরা বন্দি আছেন মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, দক্ষিণ কোরিয়া, লেবানন, জাপান, মালদ্বীপ, ওমান, মিসর, ইরান, বুলগেরিয়া, চীন, ফ্রান্স, তুরস্ক, আজারবাইজান, কোরিয়া, ব্রুনাই, জাপান, জিম্বাবুয়ে, তাঞ্জানিয়া, আলজেরিয়া, জর্ডান, মরিশাস, বাহরাইন, সাইপ্রাস, ইয়েমেন, লেবানন, সিরিয়া, কম্বোডিয়া, বেলজিয়াম, জর্জিয়া, সুইডেন, সার্বিয়া, নেপাল, পোল্যান্ড, বসনিয়া হার্জেগোভিনা, নেদারল্যান্ডস, ইতালি, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে। এর মধ্যে আমিরাত, সৌদি আরব, বাহরাইন, ওমান, মিসর, কাতার, মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে খুন ধর্ষণের মতো অপরাধে ইতোমধ্যেই মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত হয়ে কার্যকরের অপেক্ষায় আছেন ৩৪ জন। মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত হওয়ার মতো অপরাধে বিচার চলছে ১৪৮ জনের।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ১ কোটি বাংলাদেশি কর্মরত। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের অন্যতম উৎস। বলা বাহুল্য, প্রবাসীদের সবাই যে বৈধ পথে বাংলাদেশ থেকে সেসব দেশে গেছেন তা বলার কোনো অবকাশ নেই। এদের অনেকে অবৈধ পথে বিদেশে গিয়ে যে বিড়ম্বনায় পড়েছেন তা কল্পনা করাও কঠিন। বিশেষ করে সমুদ্রপথে ইউরোপ যেতে গিয়ে নৌকাডুবিতে প্রাণ হারিয়েছেন এমন বাংলাদেশির সংখ্যা খুব একটা কম নয়। বিদেশে তাদের আটক করে মুক্তিপণ আদায়ও ঘটেছে অসংখ্য। প্রবাসী আয় যেহেতু দেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের প্রধান উৎস সেহেতু সরকার তাদের ভালোমন্দের দায় এড়াতে পারে না। বিদেশে আটক বাংলাদেশিদের মুক্তির জন্য সরকার সম্ভাব্য সবকিছু করবে এমনটিই প্রত্যাশিত।

লেখক : সাবেক চেয়ারম্যান, রাজউক সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের উপদেষ্টা


আরও সংবাদ   বিষয়:  বিদেশে বন্দি বাংলাদেশি  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]