ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ ৩ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

বেহাল টেকনাফ-কক্সবাজার সড়ক, দুর্ভোগে যাত্রীরা
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৪ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 49

কক্সবাজার টেকনাফ আঞ্চলিক মহাসড়কের একাংশ ভেঙে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ৯০ কিলোমিটারের মধ্যে ৬৫ কিলোমিটার গত ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে পুনঃসংস্কার করা হলেও উনচিপ্রাং থেকে টেকনাফ পৌরসভার শাপলা চত্বর পর্যন্ত কোনো সংস্কার করা হয়নি। ফলে এই সড়কে ব্যবসায়ী ও যাত্রী সাধারণের জন্য চলাচল মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সড়কের উভয় পাশ ভেঙে সরু সড়কে পরিণত হয়েছে। এমনকি সড়কের মাঝখানে ভেঙে খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। গাড়ি চলাচলের সময় প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা, আহত হচ্ছে যাত্রীরা। টেকনাফের উৎপাদিত পণ্য, লবণ, পান, সুপারি ও সাগরের মাছসহ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে বিভিন্ন পণ্যবোঝায় ট্রাক এই সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে। এই পণ্যের মাধ্যমেই সরকার প্রতিবছর লাখ টাকা রাজস্ব আয় করে। এ ছাড়া ২০১৭ সালে মিয়ানমারের প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী এই সড়কের পাশে উখিয়া-টেকনাফ উপজেলায় অবস্থান নেয়। ফলে এই সড়কে আগের তুলনায় যানবাহন চলাচল বৃদ্ধি পেয়েছে চারগুণ। যোগাযোগের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম এই সড়ক পুনঃসংস্কারের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সড়ক ও জনপথ বিভাগকে জানানো হলেও কোনো উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। সড়ক ও জনপথ বিভাগের লোকজন এসে সড়ক পাহাড়ি বালু দিয়ে সামান্য পুনঃসংস্কারের নামে কয়েকটি গর্ত ভরাট করে দিলেও ভোগান্তি কমেনি কারও। যাত্রী সাধারণ ও গাড়ির মালিক, শ্রমিকদের সম্মিলিত দাবি দ্রুত এই সড়ক পুনঃসংস্কারের।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী জানান, সড়কের বেহাল অবস্থার সমাধানে সড়ক নির্মাণের টেন্ডার দেওয়ার জন্য আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে কয়েক বছর আগে প্রস্তাব পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) সড়ক নির্মাণের বিষয়টি সরাসরি তাদের তত্ত্বাবধানে নেওয়ায় টেন্ডার দেওয়া সম্ভব হয়নি। এরই মধ্যে এডিবি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে কক্সবাজারের লিংক রোড হয়ে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রথম ধাপের প্রথম প্যাকেজ সমাপ্ত করেছেন। দ্বিতীয় ধাপের দ্বিতীয় প্যাকেজের উনচিপ্রাং থেকে টেকনাফ পৌরসভার শাপলা চত্বর পর্যন্ত ৩৪ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণকাজ ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে সমাপ্তের কথা ছিল। কিন্তু সড়কের নির্মাণকাজের টাকা করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের সেবায় খরচ করায় টেন্ডার প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে বলে তিনি জানান।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]