ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ ৩ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

বিব্রত হয়ে তারা ইভ্যালি ছেড়েছেন
মোস্তাফিজ মিঠু
প্রকাশ: শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৩:৪৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 253

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির শুভেচ্ছাদূত ছিলেন তাহসান খান ও রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা। এ ছাড়া জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন শবনম ফারিয়া। অর্থ আত্মসাতের মামলায় ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেফতারের পর জানা যায়, আগেই ইভ্যালি থেকে বিদায় নিয়েছেন তারা।

ইভ্যালির পণ্য ডেলিভারি নিয়ে নানা ধরনের বিতর্কের কারণে মে মাসের দিকে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছেন তাহসান। তবে চুক্তির শর্তের কারণে প্রতিষ্ঠানটি অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে সব কিছু জানাতে পারছেন না তিনি। ইভ্যালির সঙ্গে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে এই গায়ক ও অভিনেতা বলেন, ‘গতবছর ইভ্যালি থেকে আমার কাছে প্রস্তাব আসে। কিন্তু তখন আমি আগ্রহ দেখাইনি। কিন্তু এই বছর তো চিত্র পুরো পাল্টে যায়। তারা র‌্যাবের সুন্দরবন অপারেশনের সঙ্গে যুক্ত হয়। এ ছাড়া বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর। এ সবকিছু থেকে একটা বিশ্বস্ততার জায়গা তৈরি হতে থাকে। ইভ্যালির প্রধান বিপণন কর্মকর্তা আরিফ আর হোসেন পরবর্তী সময়ে যখন আমার কাছে প্রস্তাব দেয়, তখন শুভেচ্ছাদূত হিসেবে যুক্ত হওয়ার আগ্রহ দেখাই এবং চুক্তিবদ্ধ হই।’

চুক্তি অনুযায়ী ইভ্যালির বিজ্ঞাপনে দেখা যাওয়ার কথা ছিল তাহসানকে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন বিব্রতকর অবস্থার কারণে তিনি চুক্তি বাতিল করেন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি প্রতিষ্ঠানটি দুটি লাইভে অংশ নিয়ে ছিলাম। এরপর থেকেই আমার পরিচিত ও অপরিচিত অনেকেই প্রতিষ্ঠানটির ইনভয়েস পাঠানো শুরু করেন। কিন্তু আমি শুভেচ্ছাদূত, পণ্য ডেলিভারির বিষয়ে তো আমার কিছু করার নেই। পরবর্তী সময়ে আমি এমন বিব্রত পরিস্থিতির কারণে কোনো বিজ্ঞাপনে অংশ নিইনি। এমনকি তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করি। কিন্তু টার্ম অ্যান্ড ক্লজ অনুযায়ী আমি এখনও তাদের বিষয়ে এর বেশি কিছু বলতে পারছি না। এটি প্রশাসন তদন্ত করে বের করবে।’

তাহসানের কয়েক দিন পর মিথিলাও ইভ্যালির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে যুক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু তিনিও বেশিদিন স্থায়ী ছিলেন না বলে জানা যায়। অভিনেত্রী বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানটির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে যুক্ত হওয়ার পরই বিভিন্ন জটিলতা তৈরি হতে থাকে। যেগুলো এর আগে আমার চোখে পড়েনি। এ কারণে পরবর্তীতে সরে আসি। এর বেশি কিছু আমি বলতে পারছি না।’

অন্যদিকে প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর ১ টাকাও বেতন পাননি অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। যোগদানের তিন মাস পেরিয়ে গেলেও তাকে বেতন দেওয়া হয়নি বলে তার অভিযোগ। তিন মাস কাজের পর আগস্টের শেষ সপ্তাহে তিনি চাকরি ছেড়ে দেন।

শবনম ফারিয়া ইভ্যালি নিয়ে কোনো স্টেটমেন্ট দিতে চাচ্ছেন না। তাকে ফোন করা হলে সাংবাদিক পরিচয় শুনেই তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি এখন কিছু বলতে চাচ্ছি না। কারণ আমার কোনো ধরনের মন্তব্য প্রতিষ্ঠানটির ওপর প্রভাব পড়ুক সেটি চাই না। যেহেতু মামলা হয়েছে, সেখান থেকেই সব তথ্য উঠে আসবে আশা করি।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]